1. [email protected] : admin001 :
  2. [email protected] : Khairul Islam Sohag : Khairul Islam Sohag
  3. [email protected] : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  4. [email protected] : JM Amin Hossain : JM Amin Hossain
  5. [email protected] : Soyed Feroz : Soyed Feroz
  6. [email protected] : Masud Sarder : Masud Sarder
  7. [email protected] : Kalam Sarder : Kalam Sarder
  8. [email protected] : Md. Imam Hoshen Sujun : Md. Imam Hoshen Sujun
  9. [email protected] : Royal Imran Sikder : Royal Imran Sikder
  10. [email protected] : amsitbd :
পাথরঘাটার জালিয়াঘাটায় দু’টি কবুতর কেড়ে নিল একটি তাজা প্রাণ | সময়ের খবর
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০২:১০ পূর্বাহ্ন

পাথরঘাটার জালিয়াঘাটায় দু’টি কবুতর কেড়ে নিল একটি তাজা প্রাণ

ক্রাইম রির্পোর্টার :
  • আপডেট: সোমবার, ৯ নভেম্বর, ২০২০

বরগুনা জেলার পাথরঘাটার জারিয়াঘাটা এলাকায় দু’টি কবুতরকে কেন্দ্র করে ইমরান (১২) নামের এক কিশোরকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগ রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৮ সেপ্টেম্বর বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার জালিয়াঘাটা নামক এলাকায়। এঘটনায় পাথরঘাটা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে, যার মামলা নং সিআর-২১৩/২০।
ওই পরিবার ও মামলা সূত্রে জানাযায়, বিগত মাস তিনেক আগে জালিয়াঘাটা নিবাসী আবু কালাম এর পুত্র মোঃ ইমরান দু’টি কবুতর ক্রয় করেন। ইমরানের কবুতর পালনের জন্য তেমন কোন ব্যবস্থা না থাকায় একই এলাকার বাসিন্দা মোঃ জহির মোল্লা বলেন, ‘ইমরান তোমার কবুতর আপাদত আমার কাছে রাখ, ‘তুমি ঘর (খেচা) বানিয়ে পরে আমার কাছ থেকে নিয়ে যেও’। সেমোতাবেক ইমরান সাময়িকভাবে ঐ কবুতর দু’টি তার কাছে রাখেন। এর কিছুদিন পরে কবুতর আনতে গেলে জহির মোল্লা ইমরানকে সে কবুতর না দিয়ে দু’টি কবুতরের বাচ্ছা দিয়া দেন। ইমরান কবুতরের বাচ্ছা আনতে না চাইলে তাকে চর থাপ্পর মারেন। ৫ম শ্রেণির স্কুল পড়ুয়া ইমরান (১২) তার ৫ টাকা ১০ টাকা করে জমানো অর্থ দিয়ে ক্রয় করা কবুতরের মায়া ভুলতে নাপেরে সম্প্রতি ২৮-০৯-২০২০ইং তারিখ সকালে ঐ বাড়ি থেকে তার কবুতর দু’টি নিয়ে আসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জহির মোল্লা তার ভাতিজা মঈন মোল্লা ও রিয়াজকে দিয়ে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ইমরানকে ডেকে নেয়। এমনকি ঘটনার দিন সন্ধ্যায় জাকির মোল্লা বাড়ির পুকুর পারে নিয়ে জহির মোল্লা, মঈন মোল্লা, মামুন মোল্লা সহ ৮ থেকে ১০জন লোক অবুজ ইমরানকে বেধম মারধর করে এবং জোর পূর্বক তার মুখের ভিতর বিষ ঢেলে দেয়। অসহায় নাবালেক ইমরান খুনিদের হাত থেকে বাচার জন্য ডাক চিৎকার করলে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে গিয়ে ইমরানকে মুমুর্ষাবস্থায় উদ্ধার করে পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা দেন। কর্তব্যরত ডাক্তার ইমরানের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল স্থানান্তর করেন। তাৎক্ষনিক এ্যাম্বুলেন্স যোগে ইমরানকে বরিশাল নেয়ার পথে ঐ দিন রাত ৮টার দিকে ইমরান মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন। উল্লেখ্য ইমরান মৃত্যুর পূর্ব মূহুর্তে বর্ণিত তথ্য উপস্থিত সকলকে জানান।
ইমরানের চাচা বেল্লাল কান্না বিজরিত কন্ঠে বলেন, ‘দু’টি কবুতরকে কেন্দ্র করে খুনি জহির মোল্লা ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে অকালে প্রাণ দিতে হয়েছে ৫ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ইমরানকে, এ কষ্ট সহ্য করার মত নয়, ইমরানের বাবা-মা আজ পাগলের মত হয়েগেছে’।
সূত্রে আরও জানাযায়, এ ঘটনার ন্যায় বিচারের জন্য পাথরঘাটা থানায় মামলা করার জন্য গেলে অজ্ঞাত কারণে থানায় মামলা নেয়নী। পরে নিরুপায় হয়ে ০৮-১০-২০২০ইং তারিখ চাচা বেল্লাল বাদী হয়ে ৭জনকে আসামী করে পাথরঘাটা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং সিআর-২১৩/২০।
বেল্লাল আরও বলেন, ‘বিবাদী জহির মোল্লা প্রভাবশালী বিধায় ন্যায় বিচারের জন্য বিভিন্ন জায়গায় দারস্থ হয়েও বিচার পাচ্ছি না, উল্টো বিবাদী কর্র্র্র্তৃক অনেক চাপের মুখে দিনযাপন করতে হচ্ছে আমাদের, বিবাদী আমাকে মারধর সহ খুন জখমের ভয় ভীতি দেখায় এবং আমাদেরকে এলাকা ছাড়ার হুমকি দেয়’।
বিবাদী এলাকার সন্ত্রাসী ও প্রভাবশালী লোক তাই তাদের হাত থেকে বাচার জন্য হত্যার শিকার ইমরানের পরিবার গত ০৪-১১-২০২০ইং তারিখ পাথরঘাটা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন, যার নং ১৬০, তারিখ ০৪-১১-২০২০ইং।
ইমরানের পরিবার খুনিদের বিচারের জন্য বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে দ্বারস্থ হচ্ছে।
এ ব্যাপারে ৬নং কাকচিরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আলাউদ্দিন পল্টু বলেন, মৃত্যুর ঘটনা সত্য, তবে হত্যা না আত্মহত্যা সেটা বলতে পারব না। ইমরান পরিবারের দাবী দু’টি কবুতরের জন্য তাকে হত্যা করা হয়েছে, আবার জহির মোল্লার দাবী নিজে আত্মহত্যা করেছে।
এব্যাপারে পাথরঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ এর মুঠোফোনে (০১৩২০১৫৬২১৩) কথা হলে তিনি বলেন, এ বিষয় থানায় মামলা হয়নী, তকে কোর্টে মামলা হয়েছে। হত্যার বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, হত্যা না আত্মহত্যা সেটা মেডিকেল রিপোর্ট ছাড়া বলা সম্ভব নয়।

আপনার মতামত এখানে লিখুন

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ
স্বত্বাধিকারী: রুরাল ইনহ্যান্সমেন্ট অর্গানাইজেশন (রিও) এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার জনকল্যাণ মন্ত্রনালয়ের সমাজসেবা থেকে নিবন্ধনকৃত।
Developed BY: AMS IT BD
Translate »